ভিয়েতনাম ভ্রমণ খরচ ও ভিসা নিয়ে যাবতীয় তথ্য জেনে নিন।

ভিয়েতনাম ভ্রমণ খরচ খুব কম। আপনি অনেক কম খরচে ভ্রমণ করতে পারবেন এশিয়ার এই সুন্দর দেশটি। বাংলাদেশ থেকে প্রচুর ট্যুরিস্ট এই দেশটি ভ্রমণ করে। এখান কার জনপ্রিয় স্পটের মধ্যে ডা ন্যাং, মার্বেল মাউন্টেইন ও হোই অ্যান উল্লেখযোগ্য। এখানে থাকা-খাওয়ার খরচ বেশ কম খরচ। ভিয়েতনামে ভ্রমণে গেলে মাস্টবি আপনার তালিকায় রাখবেন ‘ফু কুয়োক’ সমুদ্রসৈকতটি এখানে অনেক সুন্দর প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখতে পাবেন। যা আপনার মনকে করে তুলবে সতেজ। এছাড়া আরো ট্যুর স্পট সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন আমাদের birbangla.com ওয়েবসাইট এবং জানুন আপনার পছন্দের ট্যুর স্পটের সকল তথ্য।

ভিয়েতনাম ভ্রমণ খরচ

পছন্দের এলাকায় পার্টটাইম/ফুলটাইম চাকরি খুঁজে পেতে এই অ্যাপটি ইন্সটল করে এখনই আবেদন করুন

ভিয়েতনামে রয়েছে পর্যটকদের জন্য অসাধারণ বহু প্রাকৃতিক দর্শনীয় স্থান। ভিয়েতনাম ঘুরতে অনেক কম খরচে হয়ে যায়। আপনি যদি মনেকরেন এশিয়ার ভালো কোন দেশে অল্প খরচে ঘুরতে যাব তাহলে আপনি ভিয়েতনামের এই দেশটি আপনার তালিকাতে রাখতে পারেন।

ভ্রমণ খরচঃ ঢাকা থেকে সরাসরি ভিয়েতনামে যাবার কোনও প্লেন নেই। ঢাকা থেকে সিংগাপুর বা থাইল্যান্ডের ব্যাংকক বা মালেয়শিয়ার সাউথার্ন বা মালেয়শিয়ান এয়ারলাইন্স দিয়ে ভিয়েতনা্মে যেতে হয়। বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এ যেতে সময় বিভিন্ন লাগে। তবে ৭ থেকে ১০ ঘণ্টায় যাওয়া যায়। সবচেয়ে বেশী সময় লাগে মালেয়শিয়ান এয়ারলাইন্সে, প্রায় ২৩ ঘণ্টার মতো। ঢাকা থেকে থাই লায়ন বা মালন্দো এয়ারে ভিয়েতনাম যেতে ১জনের জন্য ২২,০০০-৩০,০০০ টাকা খরচ হবে। আর যাওয়া আসা এবং থাকা খাওয়া সহ ৭০,০০০-৮০,০০০ টাকার মধ্যে ২ রাত ৩ দিন থাকতে পারবেন। বিমানের টিকেট আগে কেটে রাখলে ভাড়া তুলনামূলক কম হবে।

ভালো কোয়ার্টারে থাকার জন্য বেশ কিছু ভালো হোটেল আছে। যেমন- গ্রিন হাউজ, দা হানোয়িন হোটেল, সামারসেট গ্র্যান্ড হানয় ইত্যাদি এখানকার পাবলিক হোটেল গুলোতে ১৫০০-২৫০০ এর মধ্যে দুইজন থাকার রুম পেয়ে যাবেন। তবে এখানে  কম খরচে যারা পর্যটকরা হোস্টেলে থাকতে বেশী পছন্দ করে তারা হোস্টেল থাকলে ৪০০-৮০০ টাকার মধ্যে এক রুমে দুইজন থাকতে পারবেন।

ভিয়েতনাম ভ্রমণ ভিসা

ভিয়েতনাম ভ্রমণ ভিসা পাওয়া যায় খুব সহজেই। ভিয়েতনাম এমব্যাসি জানাচ্ছে যে আপনি ৩টি উপায়ে ভিয়েতনামের পর্যটন ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। চলুন ভিসা পাবার উপায় সম্পর্কে জানে আসি,

১) ভিয়েতনাম এমব্যাসিতে সরাসরি গিয়ে আবেদন করা যাবে।

২) অন অ্যারাইভাল ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন অনলাইনে।

৩) যেকোনও ট্র্যাভেল এজেন্সির মাধ্যমে কিংবা অনলাইনে আপনি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। ৩ থেকে ৪ কার্য দিবসের মধ্যেই পেয়ে যাবেন ভিসা।

অন ভিসার ক্ষেত্রেঃ

১। অন অ্যারাইভাল ভিসা পাওয়ার জন্য অনুমোদনপত্রের প্রিন্ট কপি নিয়ে যেতে হবে অবশ্যই। রঙিন প্রিন্ট হলে ভালো হয়, না হলেও অসুবিধা নেই।

২। পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি ছবি নিয়ে যাবেন। স্টিকার ভিসা পাওয়ার জন্য এটি আবশ্যক।

৩। ২৫ ডলার দিতে হবে স্টিকার ভিসার জন্য।

৪। ভিসা পাওয়ার জন্য যোগাযোগ লিংক:-  http://bhm.bimanholidays.com/visaservice?t=undefined

ভিয়েতনামের ট্যুর ভিসাঃ অনলাইন ফর্ম পূরণ করে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে পেমেন্ট করার দুইদিনের মধ্যে অ্যাপ্রুভাল লেটার বা অনুমোদনপত্র চলে আসবে মেইলে। সেটি দেখালে ভিয়েতনাম এয়ারপোর্টে নেমেই মিলবে স্টিকার ভিসা। এতসব ঝক্কির মধ্য দিয়ে যেতে না চাইলে ট্র্যাভেল এজেন্সিগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। অন অ্যারাইভাল ভিসার ক্ষেত্রে ৪ হাজার টাকা নেয় এজেন্সিরা। সেক্ষেত্রে আপনি থাকতে পারবেন একদম নিশ্চিন্ত। ২ থেকে ৩ কার্য দিবসের মধ্যেই মেইলে চলে আসবে অনুমোদনপত্র। ভিয়েতনামে নেমে সেটি দেখিয়ে ২৫ ডলার দিলেই পেয়ে যাবেন ভিসা। চাইলে তাদের কাছ থেকে স্টিকার ভিসাও করিয়ে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে সাড়ে ৯ হাজার টাকা খরচ পড়বে।

ভিয়েতনাম ভ্রমণ খরচ, ভিয়েতনাম ভ্রমণ ভিসা, ভিয়েতনাম ভ্রমন, ভিয়েতনাম ভ্রমন খরচ, কম খরচে ভিয়েতনাম ভ্রমণ,

 

Leave a Comment