বগালেক ভ্রমণ গাইড ও খরচ

বগা লেক বা বগা হ্রদ বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উচ্চতার স্বাদু পানির একটি হ্রদ।বগালেকের অবস্থান বান্দরবানের রুমা উপজেলায় কেওকারাডাং এর কোল ঘেঁষে।আপাতদৃষ্টিতে বাংলাদেশের অন্যান্য লেকগুলোর তুলনায় আকারে দেখতে ছোট হলেও পৌরাণিক রহস্যে ঘেরা বিশাল বিশাল পাহাড়ের খাঁজে এবং সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে হাজার ফুট উপরে এই লেক কিভাবে সৃষ্টি হয়েছে সেটাই ভ্রমণপিপাসুদের কৌতুহলী করে তোলে!বগালেকের রূপ ক্ষণেক্ষণে বদলায়! যতক্ষণ সময় পেয়েছি দেখেছি নানা রূপের এই রহস্যময়ী লেক।সকাল, সন্ধ্যা বা রাতে প্রতি বেলায়ই বগা লেক নতুন রূপে ধরা দেয়। সকালের উজ্জ্বল আলো যেমন বগা লেককে দেয় সিগ্ধ সতেজ রূপ। ঠিক তেমনি রাতের বেলায় দেখা যায় ভিন্ন এক মায়াবী হাতছানি। রাতের বগালেক দিনের বগা লেক হতে একেবারেই আলাদা। আর যদি রাতটি হয় চাঁদনী রাত তবে এটি হতে পারে আপনার জীবনের সেরা রাতের একটি। কি অসাধারণ সে রূপ। নিকষকালো অন্ধকার রাতে পাহাড়ের বুক চিড়ে হঠাৎ একফালি চাঁদ মৃদু আলোর ঝলক নিয়ে ঝাপিয়ে পড়ে বগালেকের শান্তজলে।

বগা লেক ভ্রমণ গাইড

বগা লেক ভ্রমণ গাইড

বগা লেক: বগাকাইন লেক বা বগা লেক নামে পরিচিত এ প্রাকৃতিক লেকটি বান্দরবানের রুমা উপজেলার অন্তর্গত। সম্ভবত ২০০০ বছর আগে মৃত কোন আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ বা উল্কাপিণ্ড পতনের ফলে লেকটি তৈরি হয়েছিল। যদিও এ লেকের ব্যাপারে অনেক উপকথাও প্রচলিত আছে।

কিভাবে যাবেন

প্রথমেই আপনাকে ঢাকা থেকে বান্দরবানে পৌছাতে হবে।প্রথমে আপনাকে বান্দরবান শহরে যেতে হবে। ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন বান্দরবানের উদ্দেশ্যে কয়েকটি পরিবহন কোম্পানির গাড়ি ছেড়ে যায়। যেমন শ্যামলি, হানিফ, ইউনিক, এস আলম, ডলফিন- এর যেকোনো একটি বাসে চড়ে আপনি বান্দরবানের যেতে পারেন। রাত ১০ টায় অথবা সাড়ে ১১টার দিকে কলাবাগান, সায়েদাবাদ বা ফকিরাপুল থেকে এসব বাস বান্দরবানের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। নন এসি বাসে জন প্রতি ভাড়া ৫৫০ টাকা। এসি ৯৫০ টাকা। চট্টগ্রাম থেকে বান্দরবান যেতে পারেন।

বান্দরবান থেকে রুমায় চান্দের গাড়ি অথবা ব্যাক্তিগত গাড়িতে করে যেতে পারবেন। রুমা থেকে জিপে করে বগা লেকে যেতে পারবেন। এছাড়া শীতকালে পায়ে হেঁটে বগা লেকে পৌছাতে পারবেন। পায়ে হেঁটে বগা লেকে পৌছাতে প্রায় ৬ ঘণ্টা সময় লাগবে।

এবার আপনাকে বান্দরবন হতে চান্দেরগাড়ীতে করে যেতে হবে রুমা। রুমা বাজারে থাকার জন্য কিছু হোটেল আছে, তবে দিনের মধ্যেই বগালেক চলে যাওয়া উচিত, রুমা বাজারে অবশ্যই বিকাল ৪ টার মধ্যে পৌছাতে হবে, ৪ টার পরে সেনাবাহিনী আর নতুন কোন চান্দের গাড়ি বগা লেক এর উদ্দেশে রওনা দেওয়ার অনুমতি দেয় না। বান্দরাবন থেকে রুমা উপজেলা সদরে যেতে খরচ হবে জন প্রতি ৮০/- অথবা পুরো জীপ ভাড়া করলে ২২০০-২৫০০/- আর রুমা থেকে বগালেক যেতে জনপ্রতি ৮০-১০০/- অথবা পুরো জীপ ভাড়া করলে ২২০০-২৫০০/- পর্যন্ত।

 

কখন যাবেন বগা লেক

বর্ষাকালে রুমাগামী জীপ কইক্ষ্যংঝিড়ি পর্যন্ত যায় । তারপর ইঞ্জিন চালিত নৌকায় করে প্রায় ১ ঘন্টার অধিক পথ পাড়ি দিয়ে রুমা সদরে যেতে হয় । রুমা থেকে পায়ে হেটে অথবা জীপে করে বগালেক যেতে হয় । বর্ষা মৌসুমে বগা লেক যাওয়া নিতান্তই কষ্টসাধ্য। তাই বগা লেক ভ্রমনে শীতকালকে বেছে নেওয়া শ্রেয়।

গাইড: রুমা বাজারে নেমে প্রথমে গাইড খুঁজে নিন। স্থানীয় কাউকে বললে পেয়ে যাবেন গাইডের ঠিকানা। প্রতিদিনের জন্য গাইডকে দিতে হবে বিজিবি দ্বারা নির্ধারিত ৬০০ টাকা।

ছাড়পত্র: গাইডকে বলে বিজিবি ফর্ম আর ছাড়পত্রসহ যাবতীয় কিছু রেডি করে রাখুন। দুপুরের খাবারের পর ফর্ম ফিলআপ করে বিজিবি ভ্রমণ খাতায় নাম-ঠিকানা, স্বাক্ষর সবকিছু ঝামেলামুক্ত করে রুমা বাজার যান।

যা রাখবেন: প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র সাথে রাখুন। যেমন- খাবার স্যালাইন, ট্র্যাকিং জুতা, হাল্কা ওষুধ, বিশুদ্ধ পানি ও শুকনা খাবার।

চাদের গাড়ি: ট্যুর মেম্বার ৪-৬ জন হলে ফোর হুইলার জিপ ভাড়া নেওয়াই ভালো। খরচ আসা-যাওয়ায় ৪২০০ টাকার মত। মেম্বার বেশি হলে চাদের গাড়ি নেওয়া ভালো। খরচ ৫৩০০ টাকা বা তার কমবেশি হতে পারে।

বেস ক্যাম্প:

 বগা লেক ভ্রমণে যেমন জনপ্রিয়, একইসঙ্গে পর্বতারোহীদের কাছে অনেকটা বেস ক্যাম্পের মতো। কারণ যারা রুমা হয়ে ট্রেকিং রুটগুলোতে যেতে চান, তাদের জন্য বেস ক্যাম্প করতে বগা লেক ভালো অপশন।


বগা লেক রহস্য,বগা লেক কোন জেলায় অবস্থিত,বগা লেক ভ্রমণ,বগা লেক বান্দরবান,বগা লেকের ইতিহাস,বগা লেক ভ্রমণ গাইড,বগা লেক উইকিপিডিয়া,বগা লেক ভ্রমণ ব্লগ,birbangla.com,

Leave a Comment