ল্যাপটপ ভালো রাখার উপায়

ল্যাপটপ ভালো রাখার টিপস

ল্যাপটপ ভালো রাখার টিপস

ল্যাপটপট ভালভাবে চালানোর   জন্য আপনার ল্যাপটপের  যত্ন নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। কিছু  সহজ পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করলে আপনার ল্যাপটপটি দীর্ঘকাল স্থায়ী হবে এবং কম রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন তা নিশ্চিত করবে।  বোনাস হিসাবে, অনেকগুলি পদক্ষেপ আপনার ল্যাপটপের গতিও বজায় রাখবে। তবে এটাও ঠিক কিছুদিন পরপর আপনার ল্যাপটপটি চেকাপ করানো উচিত যাতে বড় কোনো সমস্যা না হয় ।ল্যাপটপ নষ্ট হলে নিজেকে দোষ দেওয়ার আগে কিছু  টিপস অনুসরণ করুন যা আপনার ল্যাপটপকে ভালো রাখবে ।

ধাপ সমূহ  ঃ

১।আপনার ল্যাপটপ থেকে তরল পদার্থ দূরে রাখুন ঃ আপনার ল্যাপটপের কাছে কফি, সোডা, জল বা অন্য 
কোনও তরল দূরে রাখুন, দুর্ঘটনাগুলি খুব সহজেই ঘটতে পারে।  তরলগুলি যদি ছড়িয়ে পড়ে অভ্যন্তরীণ
 মাইক্রো ইলেক্ট্রনিক উপাদানগুলিকে ক্ষতি করতে বা বৈদ্যুতিক ক্ষতির কারণ হতে পারে।শর্ট সার্কিটগুলি ডেটা দূষিত
 করতে পারে বা ল্যাপটপের কিছু অংশ স্থায়ীভাবে ধ্বংস করতে পারে। সমাধানটি খুব সহজ: আপনার পানীয়গুলি 
আপনার কম্পিউটার থেকে দূরে রাখুন।

২।ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার ব্যবহার করুন ঃ আপনি যদি কোনো ফাইল ডাউনলোড
 করেন ,তবে ডাউনলোড করা ফাইলে একটি ভাইরাস থাকতে পারে। আপনি যদি অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার না রাখেন
তবে আপনি নিজের সিস্টেমে একটি সার্কিট ত্রুটি বা সফ্টওয়্যার সমস্যা হতে পারে। ভাইরাসটি সিস্টেমের 
কাজকর্ম এবং কার্যকারিতাও কমিয়ে দিতে পারে।

৩।আপনার ল্যাপটপ থেকে খাবার দূরে রাখুন ঃ আপনার ল্যাপটপ এর উপর খাবার খাবেন না ,খাবারের দানা
 কীবোর্ডগুলির মধ্যে পড়তে পারে এবং সার্কিটরি ক্ষতিগ্রস্থ করতে পারে। সবচেয়ে খারাপ বিষয়, ল্যাপটপটি যদি 
ক্র্যাম্বস/খাবারের দানা থাকে তবে এটি ময়লা দেখাবে।

৪।কম্পিউটার কে সবসময় ধুলাবালি মুক্ত পরিষ্কার স্থানে রাখুন ।

৫।আপনার ল্যাপটপটি ব্যবহার করার সময় সর্বদা পরিষ্কার হাত রাখুন ঃ পরিষ্কার হাত আপনার ল্যাপটপ
 টাচপ্যাড ব্যবহার করা আরও সহজ করে তোলে এবং কম্পিউটারে ময়লা এবং অন্যান্য দাগ পড়ার ঝুঁকি কম 
থাকবে। এছাড়াও, আপনি ল্যাপটপটি ব্যবহারের আগে যদি আপনার হাত পরিষ্কার না করেন তবে আপনার ঘাম এবং
 ছোট কণাগুলির সংস্পর্শের ফলে ল্যাপটপের টাচপ্যাড এর কর্মক্ষমতা কমে যাবে ।

৬।এলসিডি ডিসপ্লে মনিটর রক্ষা করুন ঃ আপনি যখন ল্যাপটপটি বন্ধ করবেন, তা নিশ্চিত করে নিন যে 
কীবোর্ডে কোনও ছোট আইটেম যেমন পেন্সিল বা হেডফোন/ইয়ারফোন না থাকে। ল্যাপটপ যদি  বন্ধ করার সময়
  এগুলি থাকে ডিসপ্লে স্ক্রিনটিকে ক্ষতি করতে পারে; আইটেমটি রুক্ষ হলে স্ক্রিনটি স্ক্র্যাচ করবে।

৭।পাওয়ার কর্ডটি টানবেন না ঃ  আপনার প্লাসের উপরে আস্তে খোলার চেয়ে যদি  কর্ডটি প্লাগ  জোরে টান দিয়ে
 বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টা করেন তবে পাওয়ার সকেটের ক্ষতি করতে পারে। এছাড়াও, যদি বিদ্যুতের কর্ডটি আপনার
 পায়ের কাছে থাকে তবে এটিকে দুর্ঘটনাক্রমে লাথি মারবেন না তবে শেষ পর্যন্ত এটিকে ভেঙে যেতে পারে।

৮।যত্নসহকারে যে কোনও অপসারণযোগ্য ড্রাইভ পরিচালনা করুন ঃ আপনার ল্যাপটপ থেকে সিডি
 ড্রাইভগুলি সহজেই চূর্ণ বা নষ্ট হতে পারে যদি এটা সাবধানে খোলা বা বন্ধ না রাখেন।
 
৯।ড্রাইভগুলো সাবধানে ঢুকান  ঃ ড্রাইভের স্লটে জোর করে কোনো পেন্ড্রাইভ বা অন্য কোনো ইনপুট ঢুকাবেন না ।
এতে ড্রাইভ এর ক্ষতি হয় ।

১০।বছরে একবার ল্যাপটপের ভেতরের ময়লা পরিষ্কার রাখুন ঃকোনো পেশাদার  দ্বারা অথবা আপনি যদি পারেন
 তবে নিজেই ল্যাপটপের ময়লা পরিষ্কার করুন। যদি ধূলিকণা জমে থাকে তবে সিস্টেমটি নিজেকে সঠিকভাবে 
শীতল করতে সক্ষম হবে না। তাপ মাদারবোর্ডকে নষ্ট করতে পারে।

১১।আপনার ল্যাপটপের উপরে বইয়ের মতো ভারী উপকরণ স্থাপন করা থেকে বিরত থাকুন ঃ এটি কীবোর্ডে
 এলসিডি স্ক্রিনটিকে ধাক্কা দিতে পারে এবং শেষ পর্যন্ত এটি ক্ষতিগ্রস্থ করবে। এছাড়াও, সিডি-রম এ ধাক্কা লাগলে সেটি
ভেংগে যেতে পারে ।

১২।সঠিক আকারের ল্যাপটপ কেস ব্যবহার করুন ঃ আপনি আপনার ল্যাপটপটি চারপাশে বহন করতে হয় তবে
 এমন কিছু ব্যবহার করুন না কেন, এটি কেস, ব্যাগ, বা আপনি নিজেরাই তৈরি কিছু হোক না কেন তা নিশ্চিত
 হয়ে নিন যে ল্যাপটপটি ধরে রাখার পক্ষে এটি যথেষ্ট বড়। এটি স্ক্র্যাচিং বা অন্য আঘাত এড়াতে সহায়তা করবে।

১৩।এক্সহাস্ট ফ্যান এর চারিদিক ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার রাখুন ঃযদি এটি প্লাগ আপ হয়ে যায় তবে বায়ু প্রবাহ
 হ্রাস পাবে এবং অতিরিক্ত উত্তাপ ঘটতে পারে।

১৪।বিছানায় আপনার ল্যাপটপ ব্যবহার করবেন না ঃ বিছানায় বার বার ল্যাপটপের ব্যবহার করলে বিছানার
 ধুলাবালি এবং ধ্বংসাবশেষ চুষতে বাধ্য করবে, শেষ পর্যন্ত পাখাটি আটকাবে।

১৫।সর্বদা পরীক্ষা করে নিন যে আপনার ল্যাপটপে বেশি সফটওয়্যার এবং ব্লোট-ওয়্যারগুলি চালু রাখবেন না কারণ
 তারা গেম খেলতে বা উচ্চ কাজগুলি করার জন্য প্রয়োজনীয় মূল্যবান স্মৃতি খায়।

১৬।আপনার কম্পিউটারে  বড় বা অসমর্থিত মাল্টিমিডিয়া ফাইলগুলি চালানোর চেষ্টা করবেন না কারণ এটি 
সাধারণত কম্পিউটারের ক্ষতি করে।

১৭।সাবধানতা অবলম্বন করুন যে আপনি যদি ল্যাপটপটি আশেপাশে ধুলোবালি দিয়ে পূর্ণ স্থানে ব্যবহার না করেন
 তবে এটি সময়ের সাথে সাথে তাপ থেকে বাঁচার পথে অবরুদ্ধ হতে পারে এবং এর ফলে আপনার ল্যাপটপটি 
স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি দ্রুততর হয়ে উঠবে।


ল্যাপটপ ভালো রাখার উপায়,ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়,birbangla.com,

Leave a Comment