একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২০-২০২১।একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নিয়মাবলী ২০২০

মহামারির করোনা ভাইরাসের কারণে একাদশ শ্রেনীতে ভর্তির অনিশ্চয়তা দেখা গেলেও অবশেষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২০-২০২১ প্রকাশ হয়েছে।  বাংলাদেশে এবারে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া প্রায় ষোল লাখ শিক্ষার্থীর কলেজে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে আগামী ৯ই অগাস্ট।

এবার একাদশ শ্রেণির ভর্তিতে কেবল অনলাইনে আবেদন নেওয়া হবে। এসএমএসে আবেদন করা যাবে না। ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা অনলাইনে কমপক্ষে ৫টি ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ বা সমমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করতে পারবে। এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে ভর্তির কাজটি হবে। কোনো পরীক্ষা হবে না।

 একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২০-২০২১

কিন্তু এবার করোনাভইরাস মহামারির কারণে পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে আর শিক্ষার্থীরা স্কুল প্রাঙ্গণে না গিয়ে ফল জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেছে বোর্ডের এসএমএস বা ওয়েবসাইটগুলো থেকে জানার জন্য।এরপর কিছুটা উদ্বেগ ছিলো মহামারিকালে কিভাবে হবে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হওয়ার প্রক্রিয়া।

এখান থেকে আবেদন করুনঃ www.xiclassadmission.gov.bd 

এবার কর্তৃপক্ষ আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো যে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তির আবেদন নেয়া শুরু হবে দশই মে আর শেষ হবে ২৫শে জুন। একই সাথে ক্লাস শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিলো পহেলা জুলাই থেকে।কিন্তু মহামারি পরিস্থিতি ঠিক না হওয়া পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয় কিনা তা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দেয়।

ঢাকা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশে ভর্তির জন্য আসন আছে ২২ থেকে ২৩ লাখ। ফলে উচ্চমাধ্যমিক মোট আসন নিয়ে সমস্যা হবে না। কারণ আসন খালি থাকবে। তবে সংকট হলো, ভালো কলেজগুলোতে আসন কম। সেখানেই হবে তীব্র প্রতিযোগিতা।

তবে ভর্তির কাজটি অনলাইনে হলেও কবে একাদশ শ্রেণিতে ক্লাস শুরু হবে তা এখনো নিশ্চিত নয়। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী এখন পর্যন্ত ৬ আগস্ট পযন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা থাকলেও আজ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আগস্টে আর খোলার সম্ভাবনা নেই। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাও মনে করে সংক্রমণের যে পরিস্থিতি তাতে শিগগির খোলার সম্ভাবনা নেই।

কারণ মার্চের শুরুতে বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পরেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার এবং পরিস্থিতি ঠিক না হওয়া পর্যন্ত এগুলো খুলে দেয়ারও সম্ভাবনা নেই।সেজন্য পনেরই জুন পর্যন্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মুহাম্মদ জিয়াউল হক।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নিয়মাবলী ২০২০

 

বর্তমানে যারা একাদশ শ্রেনীতে তাদের কি হবেঃ 

বন্ধ না হলে এখন যারা উচ্চমাধ্যমিকে পড়ছে তাদের দ্বাদশ শ্রেণিতে ওঠার কথা ছিল। কিন্ত একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণিতে ওঠার বর্ষ পরীক্ষা নিতে পারেনি অধিকাংশ কলেজ। বিচ্ছিন্নভাবে দু-একটি কলেজ গত মার্চে এই পরীক্ষা শুরু করা বা শেষ করলেও বেশির ভাগ কলেজেই তা পারেনি। ফলে আনুষ্ঠানিকভাবে দ্বাদশ শ্রেণিতে ওঠানো যায়নি। যদিও কোনো কোনো কলেজ পরীক্ষা ছাড়াই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বেশির ভাগ কলেজই আনুষ্ঠানিকভাবে পদোন্নতি না দিলেও ওই সব শিক্ষার্থীদের এখন দ্বাদশ শ্রেণিতে অনলাইনে ক্লাস নিচ্ছে।

ঢাকা কলেজের একজন শিক্ষক প্রথম আলোকে বলেন, গত মার্চে তাদের কলেজে বর্ষ পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। কিন্তু শেষ করা যায়নি। এখনো কাউকে আনুষ্ঠানিকভাবে দ্বাদশ শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা না হলেও ওই সব শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে দ্বাদশ শ্রেণির।শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি প্রথম আলোকে বলেন, এখানে বোর্ডের কোনো হস্তক্ষেপ থাকে না। কাজেই এটি তারা (কলেজগুলো) তাদের নিয়মেই করবে। কীভাবে করবে এটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

যাবতীয় স্কুল,কলেজ,ইউনিভার্সিটি এর সকল খবরাখবর পেতে ভিসিট করুন।

Leave a Comment

You cannot copy content of this page